Main Menu

সৌদিগামী প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোগান্তি কমলো

Sharing is caring!

সৌদিগামী প্রবাসী বাংলাদেশের কর্মস্থলে ফিরতে আজ বৃহস্পতিবার ( ৩ জুন) থেকে সৌদি এয়ারলাইন্সের আর্থিক ও সফটওয়্যার চ্যানেলের মাধ্যমে সৌদি এয়ারের তালিকাভুক্ত তিনশ এর বেশী স্থানীয় ট্রাভেল এজেন্টের মাধ্যমে সৌদি আরবের হোটেল বুকিং করতে পারবে।

এতে সৌদি আরব প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকগণ বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সমস্যা দূরীভূত হলো।

তাছাড়া গত ২০ মে থেকে যেসব প্রবাসীরা হোটেল বুকিং এর কারণে ফ্লাইট মিস করেছেন তাদেরকে বিনা ফিতে পুনরায় টিকেট ইস্যু করতে সম্মত হয়েছে সৌদি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ। টিকেটের তারিখ পরিবর্তন তথা রি-ইস্যুর জন্য কারওয়ান বাজারস্থ সোনারগাঁও হোটেলের সৌদি এয়ারলাইন্স অফিস এর পাশাপাশি ট্রাভেল এজেন্ট থেকেও করা যাবে।

এছাড়াও এখন থেকে যারা সৌদি আরব থেকে সৌদি এয়ারলাইন্স আপ-ডাউন টিকেট ক্রয় করে দেশে আসবেন তারা টিকেট রিকনফার্ম বা তারিখ পরিবর্তনের জন্য ঢাকা, সিলেট, চট্টগ্রামসহ অন্যান্য শহরে অবস্থিত তালিকাভুক্ত ট্রাভেল এজেন্ট থেকে করতে পারবেন। এতে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ঢাকার কারওয়ান বাজারে সৌদি এয়ারলাইন্স অফিসে আসার প্রয়োজন কমে গেল।

হোটেল বুকিং এর জন্য ট্রাভেল এজেন্টগুলো সর্বোচ্চ দুই হাজার এবং টিকিট রি ইস্যুর জন্য সর্বোচ্চ পাঁচশত টাকা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।

মহামারী করোনার বিস্তার রোধকল্পে সৌদি সরকার কর্তৃক গত ১৭ মে ভ্রমণ সংক্রান্ত বিভিন্ন নির্দেশনা জারি করে। যা ২০ মে থেকে কার্যকর হয়। সে অনুযায়ী যেসব বিদেশী কর্মীরা নিজ দেশে দুই ডোজ করোনার টিকা গ্রহণ করেননি বা সৌদি আরবে থাকাকালীন এক ডোজ টিকা গ্রহণ করেননি তাদেরকে সৌদি আরবে গমন করতে হলে বাধ্যতামূলকভাবে নির্দিষ্ট হোটেলগুলোতে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন পালন করতে হবে।

এতে দেশে ছুটিতে আসা সৌদি আরব প্রবাসীরা মারাত্মক আর্থিক সংকটের পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য নানাবিধ কারণে হোটেল বুকিং করতে পারছিলেন না। যেহেতু হোটেল বুকিং এর সময় পুরো টাকা পরিশোধ করতে হয়। প্রবাসী কর্মীদের বেশীর ভাগেরই ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড না থাকায় কোনোভাবেই হোটেল বুকিং করতে পারছিলেন না। প্রবাসীদের এ সমস্যা সমাধানকল্পে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় প্রবাসীদের ২৫০০০ টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেও হোটেল বুকিং করতে পারছিলেন না প্রবাসীরা। এরই প্রেক্ষিতে প্রবাসীদের যাবতীয় সমস্যা দ্রুত সমাধানের লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় একটি কুইক রেসপন্স টিম গঠন করে।

উক্ত টিম সৌদি এয়ারলাইন্স এবং আটাব (এসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্সীস বাংলাদেশ) এর সাথে দফায় দফায় বৈঠক শেষে এ সমস্যার সমাধান করতে সম্মত হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*