Main Menu

সুুন্দরবনে ৪টি নতুন পর্যটনকেন্দ্র হচ্ছে

বাগেরহাট ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইট সুন্দরবনে ইকোট্যুরিস্টদের (প্রতিবেশ পর্যটক) ক্রমবর্ধমান চাপ সামাল দিতে নতুন করে আরো ৪টি পর্যটনকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। ১৯৯৭ সালের ৬ই ডিসেম্বর জাতিসংঘের ইউনেস্কো সুন্দরবনের তিনটি পর্যটন এলাকাকে ৭৯৮তম ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইট ঘোষণা করার পর থেকে এই ম্যানগ্রোভ বনে প্রতিবছরই দেশি-বিদেশি ইকোট্যুরিস্টদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়ে চলেছে। বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে যেখানে সুন্দরবন দেখতে আসে দেশি-বিদেশি ১ লাখ ৮৩ হাজার ৪৯০ প্রতিবেশ পর্যটক। সেখানে গত অর্থবছরে সুন্দরবনে প্রতিবেশ পর্যটক বা ইকোট্যুরিস্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ২১ হাজার ৯৬৯ জন। সুন্দরবনে ক্রমবর্ধমান ইকোট্যুরিজমকে আরো বিকশিত করতে নতুন করে চারটি পর্যটনকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। নতুন এই চারটি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের আলীবান্ধা ও চাঁদপাই রেঞ্জের আন্ধারমানিক এবং খুলনার পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগের শেখেরটেক ও কৈলাশগঞ্জে। নতুন এই চারটি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র নির্মাণে বন বিভাগের ব্যয় হবে প্রায় ২৫ কোটি টাকা। নতুন এই চারটি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র হরিণ ও কুমিরসহ বন্যপ্রাণির মুক্ত বিচরণ ব্যবস্থার পাশাপাশি থাকছে ইকোট্যুরিস্টদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।