Main Menu

সিজারিয়ান শিশুরা কি মেধাবী হয়?

Sharing is caring!

প্রত্যেক বাবা-মাই চায় তাদের শিশু মেধাবী হোক। তবে একজন শিশুকে যদি মেধাবী ও সুস্থ শিশু হিসেবে পৃথিবীর আলো দেখাতে চান তবে অবশ্যই প্রস্তুতি নিতে হবে।

চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী সুস্থ সন্তান চাইলে সন্তান নেয়ার আগে বাবা-মাকে অবশ্যই চিকিৎকের পরামর্শ নিতে হবে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে যা দেখা যায় তা হলো সন্তান পেটে আসার পর মায়ের চিকিৎসকের কাছে যান পরামর্শের জন্য।

আমাদের অনেকরেই ধারণা, নরমাল ডেলিভারিতে শিশুরা কষ্ট পায়। তাই সিজারের শিশুরা বেশি মেধাবী হয়। এ ধারণা কি সত্য?

সিজার নিয়ে একান্ত আলাপচারিতায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানিয়েছেন সেন্ট্রাল হাসপাতাল লিমিটেডের গাইনি কনসালটেন্ট বেদৌরা শারমিন।

সিজারে শিশুরা কি মেধাবী হয়? এমন প্রশ্নের জবাববে তিনি বলেন, না। এ তথ্য সঠিক নয়। নরমাল বা সিজারে জন্ম নেয়া উভয় শিশুরাই মেধাবী হতে পারে। সিজারের সঙ্গে মেধার কোনো সম্পর্ক নেই।

তবে নরমান ডেলিভারিতে যেসব শিশুর জন্ম হয় তাদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা থেকে শুরু করে মেধা পর্যন্ত সব কিছুই ভালো হয়। কারণ নরমালভাবে একজন শিশু যখন জন্ম নেয় তখন তার শরীর থেকে অনেক হরমন নির্গত হয় যা ওই নবজাতকের জন্য ভালো। এই হরমনগুলো শিশুর লার্ন ব্রেন, আরও ম্যাচিউর্ড করে। তবে সিজারের জন্ম নেয়া নবজাতকের ক্ষেত্রে এটি হয় না।

তিনি বলেন, সিজার বা নরমালভাবে জন্ম নেয়া শিশুরদের সঙ্গে মেধার কোনো সম্পর্ক নেই। তবে কিছু খাবার আছে যা খেলে শিশুদের মেধা বিকাশিত হয়। মায়ের দুধ, মাছ, মাংস, শাকসবজি, ডিম, সামুদ্রিক মাছ ও মাছের তেল ও বিভিন্ন ধরনের ফল শিশুর মেধা বিকাশে সাহায্য করে।

তবে এক্ষেত্রে বাবা-মাকে সচেতন হতে হবে। আমাদের দেশের বেশির ভাগ দম্পতি শিশুর কনসেভ হওয়ার পরে চিকিৎসকের পরামর্শ নেন। তবে আমি বলব, কোনো দম্পতি যদি সুস্থ ও মেধাবী শিশুকে পৃথিবীর আলো দেখাতে চান তবে অবশ্যই আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*