Main Menu

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি

Sharing is caring!

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। শেষ আটে জায়গা করে নেয়ার ম্যাচে রিয়ালকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ফারনানদিনহোর দল।

শুক্রবার রাতে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়া এই ম্যাচে ইংলিশ ক্লাবটির হয়ে দুই গোল করেন রহিম স্টার্লিং ও গ্যাব্রিয়েল জেসুস।

প্রথম লেগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রেকর্ড ১৩ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালকে তাদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ২-১ গোলে হারিয়েছিল ম্যান সিটি। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-২ গোলের অগ্রগামিতায় পরের পর্বে উঠেছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা।

ম্যাচের নবম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ডি-বক্সের ভেতরে ভারানের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে জেসুস পাস দেন স্টার্লিংকে। সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেননি ইংলিশ ফরোয়ার্ড। ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে এটি ছিল স্টালিংয়ের শততম গোল। কোনো ইংলিশ তারকার ম্যানসিটির এটাই সর্বোচ্চ গোল।

২১তম মিনিটে বেনজেমার দূর থেকে নেওয়া শট কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন সিটি গোলরক্ষক এদারসন। তবে সাত মিনিট পর জাল আর অক্ষত রাখতে পারেননি তিনি। তাকে পরাস্ত করে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপাধারীদের সমতায় ফেরান বেনজেমাই। রদ্রিগোর ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে বল জালে পাঠান ফরাসি স্ট্রাইকার। ফলে ১-১ এ সমতায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

দ্বিতীয়ার্ধে রিয়ালকে চেপে ধরে আক্রমণের বন্যা বইয়ে দেয় ম্যান সিটি। শুরুতেই ফের এগিয়ে যেতে পারত তারা। তবে ৪৮তম মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের রক্ষণচেরা পাস থেকে বল পেলেও থিবো কোর্তোয়াকে ফাঁকি দিতে পারেননি স্টার্লিং।

কিছুক্ষণ পর আরেকটি প্রচেষ্টা নস্যাৎ করে দেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক। স্বদেশি ডি ব্রুইনের কর্নার থেকে গোলমুখে নেওয়া সরাসরি শট ফিরিয়ে দেন তিনি।

৬৭তম মিনিটে ম্যান সিটিকে আবারও গোল উপহার দেন ভারান। মাঝমাঠ থেকে উড়ে আসা বলে প্রথমে হেড করতে পারেননি তিনি। বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হয়ে দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় তিনি বল বাড়িয়েছিলেন কোর্তোয়াকে। কিন্তু তার দুর্বল হেড রিয়াল গোলরক্ষকের কাছে পৌঁছানোর আগেই আলতো টোকায় নিশানা ভেদ করেন জেুসস।

এরপর কয়েকটি সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারে কয়েকদিন আগে লা লিগার চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের তারকারা।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*