Main Menu

রাজা তৃতীয় চার্লস ব্রিটিশ পার্লামেন্টে প্রথম ভাষণ দিলেন

ব্রিটেনের রাজা হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথমবারের মতো লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার হলে পার্লামেন্ট সদস্যদের সামনে বক্তব্য রেখেছেন ব্রিটেনের নতুন রাজা তৃতীয় চার্লস। রানির মৃত্যুতে শোক জানানোর আনুষ্ঠানিকতায় উপস্থিত হন পার্লামেন্টের ৯০০ সদস্য।
লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার হলে রাজকীয় বাহিনীর নানা আনুষ্ঠানিকতা মধ্য দিয়ে শুরু হয় ব্রিটেনের নতুন রাজার ভাষণ।

সোমবার স্থানীয় সময় সকালে ওয়েস্টমিনিস্টার হলে জড়ো হন হাউস অব লর্ডস এবং হাউস অব কমন্স পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের সদস্যরা। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুতে ৯০০ আইনপ্রণেতা শোক জানাতে এসেছেন।

এক পর্যায়ে হলে এসে উপস্থিত হন ব্রিটেনের নতুন রাজা তৃতীয় চার্লস এবং তার স্ত্রী কুইন কনসর্ট ক্যামিলা। তিনি পার্লামেন্ট সদস্যদের সামনে হাজির হওয়ার পর বক্তব্য রাখেন লর্ড স্পিকার। চার্লস বলেন, রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ একইসঙ্গে ছিলেন নেতা এবং জনগণের সেবক।

পরে পার্লামেন্ট সদস্যদের সামনে বক্তব্য রাখেন রাজা তৃতীয় চার্লস। এ সময় তিনি বলেন, তার মাকে হারানো অপূরনীয় ক্ষতি।

রাজা তৃতীয় চার্লস তার ভাষণে বলেন, রানি দীর্ঘ সময় ধরে জাতি ও জনগণকে নিবেদিতভাবে যে সেবা দিয়ে গেছেন তার স্মরণেই আজ আমরা একত্রিত হয়েছি। তিনি অনেক কম বয়সেই দেশ ও জনগণের সেবা দেওয়ার জন্য নিজে থেকে প্রতিশ্রতিবদ্ধ হয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি তিনি অদম্য আত্মত্যাগের সঙ্গেই পূরণ করেছেন।

তিনি আরো বলেন, ঈশ্বরের সহায়তায় এবং আপনাদের সহচার্যে নিস্বার্থভাবে কর্তব্য পালনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন তিনি। আমিও নিবেদিতপ্রাণ হয়ে সে পথ অনুসরণ করতে দৃঢ়সংকল্পবদ্ধ।

ওয়েস্টমিনিস্টার হলে চার্লসের ভাষণ শেষ হতেই বাজানো হয় ব্রিটিশ জাতীয় সংগীত ‘গড সেভ দ্য কিং।’