Main Menu

বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা পরিকল্পনায় জাকারিয়ার যাবজ্জীবন

বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’কে হত্যা পরিকল্পনার দায়ে অভিযুক্ত নাইমুর জাকারিয়া রহমানকে (২১) যাবজ্জীবন জেল দেয়া হয়েছে। সে ইসলামি স্টেটের একজন সন্ত্রাসী। প্রথমে সে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র বাসভবন ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের গেটে বোমা পোঁতার পরিকল্পনা করেছিল, যাতে প্রথমে তার প্রহরীদের হত্যা করা যায়। এরপর ছুরি বা বন্দুক দিয়ে সে প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র ওপর হামলার পরিকল্পনা করেছিল। এ অভিযোগে বৃটিশ আদালত তাকে কমপক্ষে ৩০ বছরের জেল দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে বৃটেনের অনলাইন টেলিগ্রাফ।

এতে বলা হয়, জাকারিয়া ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লিভ্যান্টের (আইসিল) সঙ্গে যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছে। স্বীকার করেছে তার কাছ থেকে যে জ্যাকেট এবং একটি ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে তাতে ছিল বিস্ফোরক। তাকে গত নভেম্বরে গ্রেপ্তার করা হয়। জাকারিয়ার আসল আবাস ছিল বার্মিংহামে। নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে সে যখন গ্রেপ্তারের আগে কথা বলছিল তখন তাকে সহায়তা করছিল একজন আইসিল সদস্য এমনটা মনে করা হয়। মেট্রোপলিটন পুলিশ, এফবিআই এবং এমআই ৫ এর সন্ত্রাস বিরোধী অফিসাররা ছদ্মবেশ ধারণ করে তাকে পাকড়াও করে। এর পরে সে স্বীকার করে তাকে সাজিয়ে ওই অভিযানে পাঠানো হয়েছে। তা সত্ত্বেও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্রস্তুতি নেয়ার অভিযোগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। বিচার চলাকালে সে স্বীকার করে একজন বন্ধুকে লিবিয়ায় আইসিলে যুক্ত হতে সে সহায়তা করেছে। আর তা করছে আইএসের একটি স্পন্সরশিপ ভিডিও রেকর্ডিং ব্যবহার করে। দোষী সাব্যস্ত করার পর সে কর্মকর্তাদের বলেছে, যদি সে সক্ষম হতো তাহলে ওই হামলা করতোই। এ অবস্থায় বিচারক হ্যাডোন-কেভ বলেছেন, জাকারিয়া রহমান অত্যন্ত বিপদজনক। সে আবারও উগ্রবাদে ঝুঁকে যাবে না এমনটা আগেভাগে বলা যায় না। বলা যায় না যে, সে সমাজের জন্য আর কোনো বিপদের কারণ হবে না।