Main Menu

বাঙালি মুসলমানদের ভারত থেকে তাড়ানো হবে: অমিত শাহ

Sharing is caring!

এনআরসি বিল সংক্রান্ত সেমিনারে নিজ বক্তব্যে বাঙালি মুসলমানদের ভারত থেকে তাড়ানোর স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

গতকাল রাতে সেমিনার যোগ দিতে কলকাতায় পা দিয়েছেন বিজেপির এই নেতা। মঙ্গলবার দুপুরে সেমিনারে বক্তব্য রেখেছেন তিনি। সেখানেই তিনি এই ইঙ্গিত দিয়েছেন।

তৃণমূল কংগ্রেস হাজার বিরোধিতা করলেও পশিমবঙ্গে এনআরসি হবেই বলে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে অমিত বলেন, ‘দিদি যতই বলুন, এটা উনি বাংলায় করতে দেবে না, আমরা সব বেআইনি অনুপ্রবেশকারীকে তাড়াব।’

তিনি আরও বল‌েন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস এর আগে এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস করতে দেয়নি। তবে আজ পরিস্থিতি বদলেছে। তৃণমূল যতই বিরোধিতা করুক, এটা পাস হবেই।’

বিজেপি সভাপতি জানান, তিনি বাংলার জনতা তথা সমস্ত শরণার্থীদের, বিশেষ করে হিন্দু শরণার্থীদের আশ্বস্ত করতে এসেছেন যে, তাদের কাউকেই ভারত সরকার দেশ ছাড়তে বাধ্য করবে না। এমন স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে রাজনীতি করার নিন্দা করেন তিনি। একইসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিবাদকে ‘কুমিরের কান্না’ বলে অভিহিত করেন কট্টর হিন্দুত্ববাদী এই নেতা।

তিনি বলেন, নাগরিক সংশোধনী বিল পাস করার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ, শিখ শরণার্থীদের চিরকালের জন‌্য ভারতের নাগরিকত্ব দিয়ে দেওয়া হবে।

মুসলমান ব্যতিত অন্য ধর্মের শরণার্থীদের উদ্দেশ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি সরকার এই বিল‌ নিয়ে আসবে। আর তারপর ভারতের মাটিতে আমার যেমন অধিকার, আপনাদেরও তেমনই থাকবে।’

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে অমিত বলেন, ‘বামফ্রন্টের শাসনামলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একরকম কথা বলতেন।’ তিনি দাবি করেন, ‘২০০৫ সালের ৪ আগস্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী বলেছিলেন সেটা তার আবার দেখা উচিত। তিনি তখন বলেছিলেন এদের তাড়ানো হোক। এখন অন্য কথা বলছেন ভোট পাওয়ার জন্য।’

মুসলমানদের ভারতের জন্য হুমকি ইঙ্গিত করে হিন্দুত্ববাদী এই নেতা আরও বলেন, ‘দেশের থেকে কখনও রাজনৈতিক স্বার্থ বড় হতে পারে না। আমি বাংলার জনতাকে বলছি, দেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করতেই এই বিল পাস করতে হবে।’






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*