Main Menu

গরিবদের জন্য সিনেমা হল বানাচ্ছেন সালমান খান

Sharing is caring!

 

বলিউডের হিট মেশিন সালমান খান। তার সিনেমা মানেই শত শত কোটির ব্যবসা। এছাড়া তিনি ছোট পর্দায় যেসব অনুষ্ঠান করেন, সেগুলোর জন্যও নেন আকাশচুম্বী পারিশ্রমিক। এসবের বাইরে নানাবিধ ব্যবসাও রয়েছে এই তারকার।

এবার সালমান নামছেন নতুন ব্যবসায়। নিজের মালিকানায় চালু করতে যাচ্ছেন সিনেমা হল চেইন। ভারতের বিভিন্ন স্থানে তৈরি হবে তার মাল্টিপ্লেক্স। নিজের স্বপ্নের এই প্রোজেক্টের নাম দিয়েছেন ‘সালমান টকিজ’।

সিনেমা হল চালু করার প্রোজেক্টটি অনেক আগেই শুরু করেছেন সালমান খান। পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি বিষয়ক কাজ চলছিল। কিন্তু করোনা এসে থামিয়ে দেয় সব। সম্প্রতি এই প্রোজেক্ট নিয়ে মুখ খুলেছেন সালমান।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, এখন পুরোদমে চলছে ‘সালমান টকিজ’-এর কাজ। যেহেতু একটি-দুটি নয়, অনেক সিনেমা হলের প্রোজেক্ট এটি। তাই পরিকল্পনায় অনেকটা সময় লাগছে। শিগগিরই এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন বলেও জানিয়েছেন ভাইজান।

সালমানের ভাষ্য, ‘পুরোদমেই কাজ এগোচ্ছে। তবে হ্যাঁ, করোনার ফলে যা ক্ষতি হয়েছে তার জন্য হয়ত গতি একটু কমেছে। এটুকু জেনে রাখুন থিয়েটার চেইন খুলছি আমরা। হয়তো একটু সময় বেশি লাগবে, এই যা।’

চমকপ্রদ ব্যাপার হলো, সালমান খান উন্নত শহরগুলোতে সিনেমা হল বানাবেন না। গ্রাম, মফস্বলে গড়ে উঠবে তার স্বপ্নের থিয়েটারগুলো। যেসব অঞ্চলে মানুষ বড় পর্দায় সিনেমা দেখার সুযোগ পায় না, তাদের জন্যই সাল্লুর পরিকল্পনা।

শুধু তাই নয়, অন্যান্য মাল্টিপ্লেক্স থিয়েটারের চেয়ে সালমানের থিয়েটারের টিকিট মূল্য অনেক কম হবে। যাতে গরিব মানুষেরাও সিনেমা দেখতে পারে।

উল্লেখ্য, অসহায়, সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য সালমানের অগণিত পদক্ষেপ অতীতে প্রশংসিত হয়েছে। তার দাতব্য সংস্থা ‘বিইং হিউম্যান’ তো সর্বমহলে এখন পরিচিত। এসব মানবিক কাজের জন্য তাকে বলা হয়ে থাকে ‘আ ম্যান উইথ গোল্ডেন হার্ট’।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*