Main Menu

খালেদার জিয়ার অবস্থা ‘ভেরি ক্রিটিক্যাল’

Sharing is caring!

সরকারের কারণে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সুচিকিৎসা করানো সম্ভব হচ্ছে না বলেও মন্তব্য করেছেন বিএনপির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা। তিনি বলেন, ‘সরকার গত তিন বছরে তাকে (খালেদা জিয়াকে) কোনো চিকিৎসা না দিয়ে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে, সরকার গণতন্ত্রকে হরণ করার জন্য এ ক্যারিশম্যাটিক নেত্রীকে বন্দি করে রেখেছে।’

রাজধানীর এভারকেয়ার হসপিটালে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অবস্থা ‘ভেরি ক্রিটিক্যাল’ বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভা শেষে দলীয় প্রধানের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার অবস্থা ভেরি ক্রিটিক্যাল। ডাক্তার সাহেব মনিটরিং করছেন। তারা তাদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিচ্ছে।’

সরকারের কারণে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সুচিকিৎসা করানো সম্ভব হচ্ছে না বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা। তিনি বলেন, ‘সরকার গত তিন বছরে তাকে (খালেদা জিয়াকে) কোনো চিকিৎসা না দিয়ে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে, সরকার গণতন্ত্রকে হরণ করার জন্য এ ক্যারিশম্যাটিক নেত্রীকে বন্দি করে রেখেছে।’

১৩ নভেম্বর বিকেলে খালেদা জিয়াকে গুলশানের বাসভবন ফিরোজা থেকে এভারকেয়ারে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হওয়ায় পরের দিন ভোরে তাকে সিসিইউতে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসা চলছে তার।

খালেদার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকার তার পরিবার ও দল থেকে সরকারের প্রতি বার আহ্বান জানানো হলেও তাতে সাড়া মিলছে না।

এর আগে মির্জা ফখরুল জরুরি এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, বিএনপি নেত্রী জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনকে নিয়ে একটি মহল অসৎ উদ্দেশ্যে গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন মির্জা ফখরুল। গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে যৌথ সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, উত্তর বিএনপি’র আহবায়ক আমানউল্লাহ আমান, দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল ইসলাম, যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিনসহ আরও অনেকে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*