Main Menu

কলেজের সঙ্গে ‘বিশ্ববিদ্যালয়’ শব্দের ব্যবহার নিষেধ

Sharing is caring!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত অনার্স-মাস্টার্স পর্যায়ের কলেজগুলোর নামের সঙ্গে ‘বিশ্ববিদ্যালয়’ শব্দটি ব্যবহার হচ্ছে। এটি বন্ধ করতে এর আগে কয়েক দফা নির্দেশনা দেয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। এরপরও অনেক কলেজ ‘বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ কিংবা ‘কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়’ ইত্যাদি নাম ব্যবহার করছে। অধিভুক্ত কলেজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ইনস্টিটিউটগুলোর নামের সঙ্গে ‘বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ শব্দের ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে ফের নির্দেশনা দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) এ নির্দেশনা জারি করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেখানে বলা হয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ইনস্টিটিউটগুলোতে সংশ্লিষ্ট কলেজের নামের পাশাপাশি তাদের ব্যবহৃত সাইনবোর্ড, বিভিন্ন ব্যানার, কলেজ প্যাড, শিক্ষকদের ভিজিটিং কার্ডসহ বিভিন্ন প্রকাশনায় ‘বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ নাম ব্যবহার করছে। যা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্তি সংক্রান্ত প্রবিধান পরিপন্থী।

এমন পরিস্থিতিতে নির্দেশনায় সংশ্লিষ্ট কলেজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ইনস্টিটিউটগুলোকে উল্লেখিত কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

নির্দেশনায় আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ড, ব্যানার, প্যাডসহ অন্যান্য প্রকাশনা থেকে ‘বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ শব্দটি প্রত্যাহার করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। অন্যথায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্রের স্নাতকোত্তর শিক্ষার ডিন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষাবিষয়ক স্কুলের ডিন, কারিকুলাম উন্নয়ন ও মূল্যায়ন কেন্দ্রের ডিন ও রেজিস্ট্রারসহ সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন অনার্স-মাস্টার্স স্তরের কলেজের সাইনবোর্ড, ব্যানার ও প্রচারপত্রে কলেজের মূল নামের সঙ্গে ‘বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ সংযুক্ত করা হয়। অনেক আগে থেকেই বিষয়টির সমালোচনা করে আসছিল সংশ্লিষ্ট মহল।

প্রসঙ্গত, সেশনজট মুক্ত করতে ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। সরকারি-বেসরকারি কলেজগুলো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন থেকে বের করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। বর্তমানে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন প্রায় দুই হাজার ৬০০টি কলেজ রয়েছে। এর মধ্যে সরকারি কলেজ ২৭৯টি। এসব কলেজে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর শিক্ষাকার্যক্রম চালুর পরই কলেজের নামের সঙ্গে ‘বিশ্ববিদ্যালয়’ শব্দটি ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*