Main Menu

ওসমানীনগরে ব্যাংকের বুথ ভেঙে ২৪ লক্ষ টাকা লুটের ঘটনায় মামলা

Sharing is caring!

সিলেটের ওসমানীনগরে রাতের আঁধারে ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংক শেরপুর শাখার ফাস্ট ট্র্যাক এটিএম বুথ ভেঙে ২৪ লাখ টাকা ২৫ হাজার ৫০০ টাকা লুটের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সিআইডি, পিবিআই ও থানা পুলিশ ছায়া তদন্ত শুরু করেছে।

সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের পাশে শেরপুরে ইউনুছ ম্যানশনের ২য় তলায় ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংকের একটি শাখা রয়েছে। একই মাকের্টের নিচ তলায় থাকা ব্যাংকটির ফাস্ট ট্র্যাক এটিএম বুথে শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে এই ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় রবিবার রাতে ব্যাংক শাখা ব্যবস্থাপক সৈয়দ আশরাফুল আমিন বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করলেও ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার কিংবা মূল রহস্য এখনো উদঘাটন হয়নি।

ঘটনার পর ব্যাংক শাখা ব্যবস্থাপক সৈয়দ আশরাফুল আমিন সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করার জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে, ডাকাতির ঘটনার সিসি টিভির একটি ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা গেছে, ৪ জন লোক ব্যাংক শাখার ফাস্ট ট্র্যাক এটিএম বুথে ঢুকে। তাদের সাবারই মুখে মাস্ক এবং হাতে গ্লাবস ছিলো। প্রথমে এটিএম বুথের সিকিউরিট গার্ড জাকারিয়াকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তার দুই হাত স্কচটেপ দিয়ে বেঁধে ফেলে। পরে সিসি ক্যামেরায় কালো স্প্রে করে। কালো স্প্রে করার কারণে বুথ থেকে টাকা লুটের দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ হয়নি। তবে, সিকিউরিট গার্ড ভিতর থেকে চারজন মুখোশধারীকে দেখার পরও দরজা খুলে দেওয়ায় দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন। শাখা ব্যবস্থাপকের রহস্যজনক আচরণ ও ব্যাংকের বাইরের থাকা ৩টি সিসি ক্যামেরার ফুটেজ নিয়েও স্থানীয়রা প্রশ্ন তুলেছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও গ্রাহকরা অভিযোগ করে বলেন, এটিএম বুথে ডাকাতির ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এই ঘটনায় থানা পুলিশ ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষর ভিন্ন বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে। ঘটনার পর থেকে ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক স্থানীয় সাংবাদিকদের তথ্য প্রদানে এরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ডাকাতরা বুথে ডুকে গার্ডকে মারধর ও দেশীয় অস্ত্রেও মুখে জিম্মি করে বুথের লকার ভেঙে টাকা লুট করে। ডাকাতদল চলে যাওয়ার পর এটিএম বুথের গার্ড উপরে গিয়ে অন্য গার্ডদের ঘটনাটি জানায়।

এ বিষয়ে ব্যাংক শাখা ব্যবস্থাপক সৈয়দ আশরাফুল আমিন সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য দিতে অনিহা প্রকাশ করে বলেন, বিষয়টি থানা পুলিশ দেখেছেন।

ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক বলেন, ঘটনাটি রহস্যজনক। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিরাপত্তকর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। রবিবার রাতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ মামলা দায়ের করেছন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*