Main Menu

একটি দুপুর ও কবি আসাদ চৌধুরীর সাথে খুচরো আলাপ

গত ১৯শে অক্টোবর শুক্রবার রাতে জানতে পারি কবি আসাদ চৌধুরী কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু’র বাসায় শনিবার দুপুরে আসছেন। তিনি সিলেটের কেমুসাসে রবীন্দ্র-নজরুল উৎসবে প্রধান অতিথি হিশেবে আসছেন সেটা আগেও জানতাম, ধারনা ছিল সেখানেই দেখা হবে। ভেবেছিলাম হয়তো গত বছর রোজ ভিউ হোটেলের সেই আড্ডার মতো এবার তাঁর সাথে আড্ডা দেওয়ার সুযোগ হবে না। কিন্তু এই খবর পেয়ে সেই শঙ্কা চলে যায়।
উৎসুক মন নিয়ে দুপুর ১ টার দিকে শাহী ঈদগাহস্থ সৈয়দপুর হাউজে চলে যাই। গিয়ে দেখি হেলাল হামাম আমার আগেই সেখানে উপস্থিত। মহাশয়কে যেন কিছুতেই পেছনে ফেলা যাবে না। তার সাথে বসে বসে আসাদ চৌধুরীর কবিতা নিয়ে আলোচনা করছিলাম, এর মধ্যে মাহবুব মুহম্মদ ও মীর ফয়সাল ভাইও এসে উপস্থিত। কিছুক্ষণ পর সহধর্মিণী সমেত কবি আসাদ চৌধুরীও হাজির হলেন। এই বয়সেও এতো স্ফুর্তি বোধহয় শুধু কবিরাই দেখাতে পারেন। তিনি বক্তৃতায় যখন বলছিলেন তার বয়স ৮০ ছুয়েছে, তখন বিশ্বাসই করতে পারিনি।
তিনি এসেই আমাদের সাথে গল্পে ব্যস্ত হয়ে গেলেন। কবিতা ছাড়াও যে অন্যান্য সকল বিষয়ে তার সমান প্রজ্ঞা রয়েছে, তা তার কথার মধ্যে থেকে সুস্পষ্টভাবে ফুটে উঠে। তিনি ইতিহাস থেকে নিয়ে সংস্কৃতি, সব বিষয় নিয়ে এতো গম্ভীর আলোচনা করছিলেন, এক মুহুর্তের জন্যেও অমনোযোগী হতে পারলাম না। এখানে ধন্যবাদ জানাতে হয় মাহবুব ভাইকে। ভদ্রলোক সমানেই বেশ দামি দামি প্রশ্ন ছুড়ে যাচ্ছিলেন। তার প্রশ্নের প্রেক্ষিতেই আমরা আসাদ চৌধুরী সম্পর্কে অনেক অজানা কথা জানতে পারি।
আড্ডা বেশ ভালো জমে উঠেছিল। এর মধ্যে মবনু ভাই তার সেলফ থেকে তার লেখা কিছু বই কবিকে উপহার দেন। এমন সময় এসে হাজির কবি ও গবেষক নৃপেন্দ্রলাল দাশ আর গল্পকার সেলিম আউয়াল।
কবি নৃপেন্দ্রলালের আগমন ছিল যেন সোনায় সোহাগা। দুজনেই তাদের বিজ্ঞ ও তথ্যবহুল আলোচনায় আমাদের সমৃদ্ধ করলেন।
কিছুক্ষণের মধ্যেই খাবারের জন্য আহবান আসলো। খেতে বসেও মহোদয়দ্বয়ের হাস্যরস চলতে থাকে,আর আমরা উপভোগ করতে থাকি সুমিষ্ট কথা ও সাথে সুস্বাদু খাবার।
খাবারের পর বেশি কথা বলার সুযোগ হয়নি; তখন অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় হয়ে যায়। অনুষ্ঠানে যাওয়ার পর তাদের সাথে কথা বলার আর সেরকম সুযোগ হয়নি। কিন্তু, কবি আসাদ চৌধুরীর লোমহর্ষক আলোচনা শুনে আর সেই আক্ষেপ থাকেনি। হল ভর্তি দর্শক পিন পতন নিরবতা পালন করে শুধু তার কথা শুনে যাচ্ছিল। অতিরিক্ত শব্দ হিশেবে শুধু করতালিই স্থান করতে পারে। সত্যি, এই দিনটি ভুলার নয়।