Main Menu

ইউক্রেন যুদ্ধের বিকল্প ছিল না: পুতিন

ইউক্রেনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধের কোনো বিকল্প ছিলো না বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একইসঙ্গে রাশিয়ার ‘মহৎ’ লক্ষ্য পূরণ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে আগ্রাসন চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি।
সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে একটি মহাকাশ কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় মঙ্গলবার এই মন্তব্য করেন পুতিন।

তিনি বলেন, ইউক্রেনের সঙ্গে শান্তি আলোচনা শেষ পর্যায়ে পৌঁছেছে। রাশিয়ার সামরিক অভিযান পরিকল্পনা অনুসারেই চলছে। ইউক্রেনের একজন কর্মকর্তা অবশ্য সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে বলেছেন, (রাশিয়ার সঙ্গে) আলোচনা কঠিন হলেও অব্যাহত রয়েছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগাসন ষষ্ঠ সপ্তাহে গড়িয়েছে। এছাড়া এক সপ্তাহেরও বেশি সময়ের মধ্যে মঙ্গলবারই প্রথম সংঘাতের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করলেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। বিশ্বের প্রথম মানুষ হিসেবে ইউরি গ্যাগারিনের মহাকাশে ভ্রমণের ৬১তম বার্ষিকী উপলক্ষে মঙ্গলবার পূর্ব রাশিয়ার একটি মহাকাশ কেন্দ্র পরিদর্শন করেন পুতিন। সেখানে তার সঙ্গে বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কোও ছিলেন।

এসময় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দাবি করেন, ইউক্রেনে হামলা চালানো ছাড়া তার সামনে আর কোনো বিকল্প ছিল না। কারণ, পূর্ব ইউক্রেনের রুশভাষী মানুষকে রক্ষা করতে হবে। সাবেক সোভিয়েত প্রতিবেশীকে মস্কোর শত্রুদের রুশবিরোধী মঞ্চে পরিণত হওয়া থেকে ঠেকাতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের কাজ হলো, নির্ধারিত সব লক্ষ্য অর্জন, ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে রাখা। আমরা ধারাবাহিকতা মেনে, ধীরস্থিরভাবে মূলত (সামরিক বাহিনীর) জেনারেল স্টাফের দেওয়া পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করছি।

ইউক্রেনের অভিযানে লক্ষ্য অর্জিত হচ্ছে কিনা, রুশ মহাকাশ সংস্থার কর্মীদের এমন প্রশ্নের উত্তরে পুতিন বলেন, অবশ্যই। এ নিয়ে আমার কোনো ধরনের সংশয় নেই। এই অভিযানের লক্ষ্যগুলো একেবারেই স্পষ্ট এবং মহৎ। সব লক্ষ্যই যে অর্জিত হবে, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি হামলা শুরুর পর রাশিয়ার ওপর আরোপিত পশ্চিমাদের একের পর এক নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, যে ঝটিকা পদক্ষেপের ওপর আমাদের শত্রুরা ভরসা করছে, সেটা কাজ করছে না।

ইউক্রেন ও রাশিয়াকে এক জাতি উল্লেখ করে পুতিন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অনিবার্য সংঘাতের কারণে এ যুদ্ধ। তারা সীমান্তের কাছে এসে হস্তক্ষেপ করে রাশিয়াকে হুমকি দিচ্ছে।