Main Menu

আসামিরা ‘মধুকুঞ্জে’ মেয়ে ও মদ নিয়ে ফুর্তি করতেন

Sharing is caring!

চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় গ্রেফতার উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসি শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এছাড়া নাজমা আমিন বৃষ্টি (২৪), লিপি আক্তার (১৮) ও সুমি আক্তারের (১৯) তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এদিকে পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার মামলার এজাহার এদিন আদালতে এলে ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুন্নাহার তা গ্রহণ করেন। একই সঙ্গে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৮ জুলাই দিন ধার্য করেন। এদিন মাদক মামলার পাশাপাশি পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা মামলায় আসামি নাসির ও অমির ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়।

তবে মাদক মামলায় রিমান্ড মঞ্জুর হওয়ায় এটি কার্যকর হয়নি। মাদক মামলার রিমান্ড শেষ হলে ধর্ষণচেষ্টা মামলার রিমান্ড আবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করা হবে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

বিকাল ৪টা ১৫ মিনিটের দিকে নাসিরসহ পাঁচ আসামিকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়। এর দুই মিনিট পরই রাজধানীর বিমানবন্দর থানার মাদক আইনের এ মামলার শুনানি শুরু হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক উদয় কুমার মণ্ডল প্রত্যেক আসামির ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, বিমানবন্দর থানাধীন উত্তরা ১ নম্বর সেক্টরের ১২ নম্বর রোডের ১৩ নম্বর বাসায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে আসামিদের গ্রেফতার করা হয়। আসামি নাসিরের দেখানো মতে প্লাস্টিকের আট বোতল তরল সোডা, তিন ক্যান সোডা, চার বোতল বিদেশি মদ, আটটি মদের খালি বোতল উদ্ধার করা হয়। আর আসামি অমির দেখানো মতে, পাঁচটি নীল রঙের জিপার থেকে এক হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। মাদক কেনাবেচার নেপথ্যের হোতাদের চিহ্নিত করতে ও মামলার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনে আসামিদের রিমান্ডের নেওয়া জরুরি।

আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদের পক্ষে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আবুল বাতেন, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মোহাম্মদ হযরত আলী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানিতে তারা বলেন, নাসির উদ্দিন মাহমুদ ওই বাড়িতে ছিলেন না। তাকে অন্যত্র থেকে গ্রেফতার করে ওই বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। আর বাসাও তার না। তার কাছ থেকে কিছু পাওয়াও যায়নি। আসলে এর পেছনের ঘটনাটিকে সামাল দিতে এসব করা হয়েছে। নাসির উদ্দিনের বয়স ৬৫ বছর। এই দীর্ঘ সময়ে তার বিরুদ্ধে কোনো মামলাও নেই। তিনি বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত। যে কোনো শর্তে জামিন আবেদন করেন তারা।

আদালতে আসামিদের রিমান্ড চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি আবদুল্লাহ আবু বলেন, চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ৮ জুন রাতে হেনস্তা করা হয়। এ বিষয়ে মামলা হলে ডিবি পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চালায়। অভিযানে আসামিদের সঙ্গে ওইসব মাদকদ্রব্য উদ্ধার হয়।

তিনি বলেন, যে বাড়িটিতে তারা (আসামিরা) ছিলেন, সে বাড়িটির মালিক তারা নন। মূলত বাড়ি ছিল ‘মধুকুঞ্জ’। সেখানে তারা গিয়ে মেয়ে ও মদ নিয়ে ফুর্তি করতেন। বর্তমান সরকার মাদককে জিরো টলারেন্স দেখালেও ভদ্র মুখোশধারী লোকজন সমাজকে কলুষিত করছেন। ওই তিন মহিলার (আসামি) বাসা ওটা (গ্রেফতারের স্থান) নয়। তাহলে তারা কি করতে সেখানে গিয়েছিলেন? মামলার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনে আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ জরুরি।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে মাদক মামলায় ওই আসামিদের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*