Main Menu

অবৈধ অস্ত্র, ৬শ’ ভরি স্বর্ণ, কোটি টাকা জব্দ; ২০০ প্লটের সন্ধান

Sharing is caring!

রাজধানীর মেরুল বাড্ডা থেকে আন্তজার্তিক সোনা চোরাচালানকারী  মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। আজ শনিবার এক বিশেষ অভিযানে তার নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার বাসা থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, মাদক ও বিপুল পরিমাণ স্বর্ণালংকার উদ্ধার করেছে র‌্যাব। শুক্রবার রাত থেকে শুরু হওয়া অভিযান চলে সকাল ১১টা পর্যন্ত।

বেলা সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব মুখপাত্র লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানান, গোল্ডেন মনিরের বাসা থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, কয়েক রাউন্ডগুলি, বিদেশি মদ এবং প্রায় দশটি দেশের বৈদেশিক মুদ্রা উদ্ধার করা হয়। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় নয় লাখ টাকা। এছাড়া ৬শ’ ভরি স্বর্ণালঙ্কার (আট কেজি), নগদ এককোটি ৯ লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে।
আশিক বিল্লাহ আরো জানান, অভিযানে তার কাছ থেকে তিন কোটি টাকা মূল্যের দুটি অনুমোদনহীন বিলাসবহুল গাড়ি এবং অটো কার সিলেকশন শো-রুম থেকে তিনটি গাড়ি জব্দ করা হয়েছে। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা ঢাকায় মনিরের ২শ’ প্লটের সন্ধান পেয়েছি।

এছাড়া একাধিক বাড়ি আছে বলে জানতে পেরেছি। রাজউক কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশ করে সে রাজউকের সিল জাল করে অনেক প্লট হাতিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলাও চলমান আছে।

গোল্ডেন মনির মূলত একজন হুন্ডি ব্যবসায়ী ও স্বর্ণ চোরাকারবারি বলে র‌্যাব জানতে পেরেছে। পাশাপাশি সে জমির দালালি করে। বিভিন্ন দেশ থেকে ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে সে দেশে স্বর্ণ আমদানি করে। ঢাকার নতুন বাজারে তার একটি গাড়ির শো রুম আছে। মূলত এই শো রুমের আড়ালেই সব অপকর্ম করে।

র‌্যাব জানিয়েছে, তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে, অস্ত্র ও মাদক আইনে মোট তিনটি মামলা করা হবে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য, দুদক, বিআরটিএ সিআইডি ও এনবিআরের কাছে চিঠি দেবে র‌্যাব।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*