Main Menu

অধস্তন প্রকৌশলীর বুকে পা দিয়ে গলা চেপে ধরলেন নির্বাহী প্রকৌশলী

Sharing is caring!

অধনস্ত উপসহকারী প্রকৌশলীর গলা চেপে ধরে মারধরের ঘটনায় রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সচিব (প্রশাসন) সৈয়দ মাহবুবুল হক স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে বলা হয়েছে— অসদাচরণ ও চাকরি শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (কর্মকর্তা ও কর্মচারী) চাকরি প্রবিধানমালা-২০১৩ এর প্রবিধি ৪৮(ক) এর সূত্রে প্রবিধি ৫৫ অনুযায়ী চাকরি হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তর, প্রশিক্ষণ ও মানবসম্পদ উন্নয়ন, বাপাউবো, ঢাকায় সংযুক্ত করা হলো। একই আদেশে ফরিদপুর পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলীকে রাজবাড়ী পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলীর চলতি দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি পাউবোর মৃগী পওর শাখার উপসহকারী প্রকৌশলী মো. রনিকে নিজ অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে মারধর করেন নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ। ঘটনার পরপরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে প্রহৃত উপসহকারী প্রকৌশলী রনি ওই দিনও পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক বরাবর আব্দুল আহাদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। এতে উল্লেখ করা হয়, ওই দিন মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ তাকে (মৃগী পওর’র উপসহকারী প্রকৌশলী রনি) এবং গোয়ালন্দ পওর’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী ইকবাল সরদারকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরে গিয়ে রাজবাড়ী দপ্তরের কিছু প্রাক্কলন ও নোটশিটের কাজ সম্পন্ন করে আনতে বলেন।

এ সময় রনি জানতে চান তারা কীভাবে সেখানে যাবেন। তখন আব্দুল আহাদ দপ্তরের একটি গাড়ি নিয়ে যেতে বলেন। তারা ড্রাইভারকে গাড়ি বের করতে বললে ড্রাইভার বলেন, গাড়ি বের করা যাবে না। নির্বাহী প্রকৌশলীর নিষেধ আছে। আপনারা বাসে করে যান।

এছাড়াও প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরের আমিনুল ইসলামকে ফোন করে প্রধান প্রকৌশলী আছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান স্যার দপ্তরে নেই। অন্যদিকে পরদিন আবার নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদের গাড়ি নিয়ে প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরে মিটিংয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

এ অবস্থায় তারা সরকারি গুরুত্বপূর্ণ নথি নিয়ে বাসে যাওয়ার পরিবর্তে নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে গাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। বিকাল ৪টা ৪৮ মিনিটের সময় সহকারী প্রকৌশলী ফোন দিয়ে ঢাকা যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে রনি তা ব্যাখ্যা করেন। এরপর সহকারী প্রকৌশলী তাকে নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বলেন। ৫টা ২০ মিনিটের সময় তিনি নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য তার অফিস কক্ষে যান।

সেখানে গেলেই নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ তার সাথে তুই-তুকারি করেন এবং তাকে ধাক্কা দিয়ে চেয়ার থেকে ফেলে বুকের উপর পা দিয়ে গলা টিপে ধরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করার চেষ্টা করেন এবং একই সঙ্গে জবাই করার হুমকি দেন।

এ অবস্থায় নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ তাকে হত্যা করতে পারে- মর্মে আশঙ্কা প্রকাশ করে মো. রনি তার অধীনে চাকরি করতে ভয় পাওয়ার কথা জানিয়ে ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও অভিযোগকারী মো. রনি এবং সাময়িক বরখাস্ত হওয়া নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদের মোবাইল ফোন পাওয়া যায়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*